সর্বশেষ
  • সর্বশেষ
  • সর্বশেষ পঠিত
  • রাজনীতি
জাতীয়

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রাজনাথ সিংয়ের...

স্টাফ | আপডেট: ০৩:৩০, জুলাই ১৪ , ২০১৮



শারমিন শিলা:: শনিবার সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। ছবি-সংগৃহীত

 
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং।

শনিবার সকাল ১০টায় গণভবনে এ সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলাসহ রাজনাথ সিংয়ের সফরসঙ্গীরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে দুই দেশের পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন তারা।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে বেলা ১১টার পর যমুনা ফিউচার পার্কে ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র উদ্বোধন করেন রাজনাথ সিং।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ভিসা কেন্দ্র উদ্বোধনের পর দুপুরে রাজশাহী হয়ে সারদার পুলিশ একাডেমিতে যাবেন রাজনাথ। সেখানে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী ভবন উদ্বোধন করবেন দুই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

সন্ধ্যায় ঢাকায় ফিরে তার সম্মানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের দেয়া নৈশভোজে যোগ দেবেন রাজনাথ সিং।

রোববার সকালে রাজনাথ সিং ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে যাবেন।

এর পর প্রার্থনা করতে যাবেন ঢাকেশ্বরী মন্দিরে। সেখান থেকে সচিবালয়ে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

বৈঠকে নিরাপত্তা, সীমান্ত ব্যবস্থাপনা, অবৈধ কার্যক্রম প্রতিরোধে সহযোগিতা এবং ভ্রমণ ব্যবস্থাপনাসহ দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করবেন।

বৈঠক শেষে সই হবে সংশোধিত ভ্রমণ চুক্তি ২০১৮। রোববার বিকালেই দিল্লির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যাবেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

অর্থনীতি

ফের পেছাল রিজার্ভ চুরি মামলার তদন্ত...



আনিকা চৌধুরী:; বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনায় করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ পুনরায় পিছিয়ে ২৯ আগস্ট ধার্য করেছে আদালত।


 
আজ বৃহস্পতিবার মামলার প্রতিবেদন জমা দেয়ার দিন ধার্য থাকলেও তদন্ত সংস্থা সিআইডি প্রতিবেদন দাখিল না করায় ঢাকা মহানগর হাকিম একেএম মাঈন উদ্দিন সিদ্দিকী এ নতুন তারিখ ধার্য করেন।

২০১৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে জালিয়াতি করে সুইফট কোডের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের আট কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি হয়ে যায়।

স্থানান্তরিত এসব টাকা ফিলিপাইনে পাঠানো হয়। ধারণা করা হয়, দেশের অভ্যন্তরের কোনো একটি চক্রের সহায়তায় এ অর্থ পাচার করা হয়েছে।

রিজার্ভের এ অর্থ চুরি যাওয়ার ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড বাজেটিং বিভাগের যুগ্ম পরিচালক জুবায়ের বিন হুদা বাদী হয়ে ২০১৬ সালের ১৫ মার্চ রাজধানীর মতিঝিল থানায় মামলাটি দায়ের করেন। মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ (সংশোধনী ২০১৫)-এর ৪ ধারাসহ তথ্য ও প্রযুক্তি আইন, ২০০৬-এর ৫৪ ধারায় ও ৩৭৯ ধারায় করা মামলায় সরাসরি কাউকে আসামি করা হয়নি।

২০১৭ সালের ১৬ মার্চ মামলাটি তদন্ত করে সিআইডিকে প্রতিদেন দাখিলের নির্দেশ দেন আদালত। সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রায়হান উদ্দিন খান বর্তমানে মামলাটি তদন্ত করছেন।

রাজনীতি

বিএনপির ভেতরে বাইরে চক্রান্ত হচ্ছে:...

স্টাফ | আপডেট: ১২:২৪, জুলাই ১৩ , ২০১৮



কাজী সাবরিনা:: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে দেশের ভেতরে ও দেশের বাইরে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এমনকি বিএনপির ভেতরে ও বাইরে একটা চক্রান্ত হচ্ছে। যাতে করে খালেদা জিয়া জেলে থেকে বের হতে না পারেন।


 
শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে সমাবেশের আয়োজন করে ‘দেশনেত্রী যুব মুক্তি পরিষদ’।

রেজাউল কবীর পলের সভাপতিত্বে ও ইয়াছিন ফেরদৌস মুরাদের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, ব্যারিস্টার জিয়াউর রহমান খান, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ঢাকা জেলার সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশরাফ, যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি মোর্তাজুল করিম বাদরু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান প্রমুখ।

মির্জা আব্বাস বলেন, যারা আজকে বিএনপিকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে তারা একটা সময় ভেবেছিল জিয়াউর রহমানকে হত্যার পর বিএনপি ধ্বংস হয়ে যাবে। আজকেও যারা বিএনপির মাঝে ফাটল ধরানোর চেষ্টা করছে তাদের বলব সেই সময় চলে গেছে। আমরা আমাদের দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করব। তারেক রহমান দেশে ফিরবেন এবং আমরাই দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করব।

যুবদলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ করে তিনি বলেন, আমাদের এই দলটাকে দুর্বল করার জন্য বেশকিছু প্রক্রিয়া কাজ করছে। তবে সেই প্রক্রিয়া যেন কাজ না করতে পারে সেদিকে যুবদলকে খেয়াল রাখতে হবে। আমাদের কিছু ব্যর্থ নেতাকর্মী রয়েছে যারা নেতৃত্ব চায় কিন্তু নেতৃত্ব দিতে পারে না।

মির্জা আব্বাস বলেন, স্বাধীনতাযুদ্ধে যারা অংশগ্রহণ করেনি। তারা আজ ক্ষমতা দখল করে বসে আছে। এদেশকে পরাধীন করার চেষ্টা করছে।

তিনি বলেন, দেশের জেলখানায় ৩৫ হাজার বন্দি রাখা যাবে, সেখানে রাখা হয়েছে ৮৫ হাজার বন্দি। কেউ বলছে ৯৫ হাজার। এতে বোঝা যায় কিছুদিন পর পুলিশ চাইলেও আমাকে গ্রেফতার করতে পারবে না। কারণ জেলে আমাদের জেলখানায় কোনো জায়গা নেই। এই জেলখানায় বন্দি শুধু বিএনপি নেতাকর্মীরা হবেন না, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও হবেন। আজকে খালেদা জিয়া শুধু জেলে নয়, গোটা বাংলাদেশ কারাগারে বন্দি।

নির্বাচন কমিশন সম্পর্কে মির্জা আব্বাস বলেন, আগের নির্বাচনগুলো সুষ্ঠু হয়নি। এবার ৩ সিটি নির্বাচনের কার্যকলাপ দেখব। যদি নির্বাচন সুষ্ঠু না হয় আমরা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে দ্বিতীয়বার ভাবব।

সারাদেশ

চকরিয়ায় গোসল করতে নেমে ৫ছাত্রের...

এম.জুনাইদ উদ্দিন, চকরিয়া কক্সবাজারঃ কক্সবাজারের চকরিয়ায় উপজেলার মাতামুহুরী নদীতে সদ্য জেগে উঠা বালু চরে বন্ধুদের সাথে ফুটবল খেলে নদীতে গোসল করতে নামে পৌরশহরে অবস্থিত চকরিয়া গ্রামার স্কুলের ৫ মেধাবী ছাত্রের সলিল সমাধি হয়েছে। ১৪ জুলাই(শনিবার) দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে চিরিংগা মাতামুহুরী ব্রীজের দক্ষিণ পাশে ফুটবল খেলতে গিয়ে মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটে। ‘স্থানীয় একদল জেলে জাল নিয়ে খুঁজতে নামলে রাত ১২টা ২০ মিনিট পযর্ন্ত পর পর পাঁচ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। মাতামুহুরী নদীতে নিখোঁজ হওয়া ছাত্ররা হলেন, চকরিয়া গ্রামার স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্র ও আনোয়ার শপিং কমপ্লেক্সের মালিক আনোয়ার হোছাইনের দু’পুত্র আমিনুল হোছাইন এমশাদ (১৭) ও তার ছোট ভাই একই স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র আফতাব হোছাইন মেহেরাব (১৫), একই স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্র ও মানিকপুর তর্দরূপ ভট্ট্রাচার্য্যের পুত্র তুর্ণ ভট্রাচার্য (১৭), গ্রামার স্কুলের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলামের পুত্র ও ১০ম শ্রেণির ছাত্র সাঈদ জাওয়াদ আরভি (১৭) ও চিরিংগা সরকারী হাসপাতাল পাড়ার মোহাম্মদ শওকতের পুত্র ১০ম শ্রেণির ছাত্র ফারহান বিন শওকত (১৭)। নদীতে ৫ ছাত্র নিখোঁজের ঘটনায় চকরিয়ার সর্বত্রে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। নিহতদের পরিবারের কান্নায় ও আহাজারীতে আকাশ-বাতাশ ভারি হয়ে উঠেছে। তাদের বাড়িতে নিহত ছাত্রদের একনজর দেখতে হাজার হাজার মানুষ ভীড় জমাচ্ছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার মাতামুহুরী নদীতে চিরিংগা ব্রীজের নিচে সদ্য জেগে উঠা বালু চরে চকরিয়া গ্রামার স্কুলের একদল ছাত্র ও ক্ষুদে ফটবলার বন্ধুদের সাথে ফুটবল খেলতে যায়। তাদের মধ্যে একদল আর্জেন্টিনা সার্পোটার ও অপরদল ব্রাজিল সাপোর্টার হয়ে ২২জন শিক্ষার্থী দুই দলে বিভক্ত হয়ে ফুটবল খেলেন। খেলে শেষে বেলা সাড়ে ৩টার দিকে মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নামে ওই ক্ষুদে ফটবলার।তৎমধ্যে ৬জন ছাত্র নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হয়ে যায়।একজনকে তাদের সহপাঠিরা মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে চকরিয়া একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।ঘটনার ৩ঘন্টা পর স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিস ডিফেন্স ষ্টেশনের একদল ডুবুরি নদীতে জাল ফেলে নিখোঁজ হওয়া ৫ ছাত্রের মধ্যে ৪জনকে মৃতবস্থায় উদ্ধার করেন। উদ্ধার হওয়া ছাত্ররা হলেন,চকরিয়া গ্রামার স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্র আমিনুল হোছাইন এমশাদ (১৭) ও ভাই অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া আফতাব হোছাইন মেহেরাব (১৫) ও একই স্কুলের ১০ম শ্রেণীর ছাত্র ফারহান বিন শওকত(১৭)।রাত সাড়ে ১০টায় একই স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্র তুর্ণ ভট্রাচার্য (১৭), সাঈদ জাওয়াদ আরভি(১৭) ও ১২টা ২০ মিনিটে সাঈদ জাওয়াদ আরভি (১৭)। এ ঘটনার পর হাজার হাজার শোকার্ত জনতা নদীর দু’ধারে অবস্থান করে। চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, ‘স্থানীয় একদল জেলে জাল নিয়ে খুঁজতে নামলে ১১টা ২০ মিনিট পযর্ন্ত পর পর চার জনের লাশ উদ্ধার করা হয়।’ অবশিষ্ট ১জনের লাশ রাত ১২.০৫টায় পাওয়া যায়। চকরিয়া উপজেলা সরকারি কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দীন আরাফাত। তার নেতৃত্বে চলছিল উদ্ধার অভিযান। তিনি বলেন, কক্সবাজারের কোথাও ডুবুরি দল পাওয়া যায়নি। চট্টগ্রামে খবর দেওয়া হয়েছে। এর আগেই স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের দমকল বাহিনী ও এলাকার লোকজন নানাভাবে খোঁজ করে একজনকে জীবিত ও পাঁচ জনের লাশ উদ্ধার করেছে। ঘটনার খবর পেয়ে মাতামুহুরী নদীর চরে ছুটে যান চকরিয়া-পেকুয়া আসনের জাতীয় সংসদ আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইলিয়াছ, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর আলম, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মো: মতিউল ইসলামসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। তারা শোকাহত পরিবার পরিজনের প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

খেলাধুলা

তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে আজ...

স্টাফ | আপডেট: ০৪:২৬, জুলাই ১৪ , ২০১৮



সুমাইয়া বুলবুল ঐশী:: বাংলাদেশ সময় আজ রাত ৮টায় সেন্ট পিটার্সবার্গে বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও বেলজিয়াম। লড়াই হবে লুকাকু বনাম হ্যারি কেন।


 
পরিসংখ্যানের চেয়ে এ আসরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বেলজিয়ামের জয়ের কথা তুলে আনতে চান বিশেষজ্ঞরা।

২৮ জুন কালিনিনগ্রাদে 'জি' গ্রুপের ম্যাচে দেখা হয়েছিল ইংল্যান্ড ও বেলজিয়ামের। সে ম্যাচে বেলজিয়াম ১-০ গোলে জিতে যায়। সে হিসাব কষে বিশ্বকাপে অন্তত তৃতীয় হওয়ার সান্ত্বনা নিয়েই দেশে ফিরতে চান বেলজিয়ান ডিফেন্ডার টমাস মুনিয়ে।

ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হওয়ার আগে মুনিয়ে জানালেন, ‘আমরা ইংল্যান্ডের চেয়ে ভালো। এই ম্যাচে জয় পাওয়ার কোনো বাধ্যবাধকতা নেই কিন্তু এটি এমন কিছু যা আমরা পেতে চাই। আমরা অন্তত তৃতীয় হতে চাই। গ্রুপপর্বে আমরা ইংল্যান্ডকে হারিয়েছি। আবারও তাদের হারাতে চাই।’

নিষেধাজ্ঞার কারণে ফ্রান্সের বিপক্ষে সেমিফাইনালে খেলতে না পারা মুনিয়ে এ ম্যাচে একাদশে ফিরবেন বলে ধরে নেয়া হচ্ছে। এদিকে দুদলের দুই সেরা তারকা সোনার বুটের লড়াইয়ে মগ্ন। একজন ইংল্যান্ড শিবিরের হ্যারি কেন, অন্যজন বেলজিয়ান স্ট্রাইকার রোমেলু লুকাকু।

হ্যারি কেন করেছেন পাঁচ ম্যাচে ৬ গোল। অন্যদিকে লুকাকু সমসংখ্যক ম্যাচ খেলে করেছেন চার গোল। আজকের এ ম্যাচের আকর্ষণের কেন্দ্রে দুই স্ট্রাইকারের সোনার বুট দখলের লড়াই। গোলসংখ্যা বাড়াতে দুজনকেই দেখা যেতে পারে প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে আক্রমণে। হ্যারি কেনে জ্বলছিল ইংল্যান্ড। ৫২ বছর পর ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্নে বিভোর ছিলেন গ্যারেথ সাউথগেটের দল। সেমিতে সে স্বপ্ন ভেঙে চুরমার করে দিল ক্রোয়েশিয়া।

সোনা না হোক ব্রোঞ্জ নিয়ে দেশে ফিরতে চান তারা। তবে ম্যাচটি তাদের জন্য দুটি কারণে গুরুত্বপূর্ণ। এক. প্রতিশোধ নেয়া। দুই. তৃতীয় স্থানে উঠে আসা।

আজকের খেলায় কোচ সাউথগেট বেলজিয়ামের বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে বেশ কয়েকটা পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছেন। গোলরক্ষক জর্ডান পিকফোর্ডের জায়গায় খেলতে পারেন জাক বাটল্যান্ড।

পিকফোর্ড বলেছেন, ‘বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে এসেছিলাম আমরা। কিন্তু সেই স্বপ্ন অধরাই থেকে গেছে। তাই তৃতীয় হওয়টাই এ মুহূর্তে প্রধান লক্ষ্য।’

তবে তৃতীয় স্থানটি কেড়ে নিতে পারলে ইংল্যান্ড দলের জন্য রয়েছে সুখবর। সাউথগেটের মতে, ‘বিশ্বের প্রথম পাঁচটি দলের মধ্যে ইংল্যান্ড নেই। তবে তৃতীয় হলে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে উন্নতি হবে।’


 
এ মুহূর্তে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ইংল্যান্ড ও ডেনমার্ক দুদলই ১২ নম্বরে রয়েছে।

বিনোদন

মাদাম তুসোয় আনুশকা শর্মা



কাকলি সেন সেতু:: সিঙ্গাপুরের মাদাম তুসোর মিউজিয়ামে এবার বসানো হচ্ছে বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মার মোমের মূর্তি। ভারতীয় গুণী অভিনেত্রী ও আলোচিত ব্যক্তিত্বের জন্য দেয়া হচ্ছে এ সম্মাননা। বর্তমানে অভিনেত্রী ও প্রযোজক হিসেবে বেশ ভালো সময় পার করছেন তিনি।


 
এছাড়াও ব্যক্তিজীবনে ভারতীয় ক্রিকেটার বিরাট কোহলিকে বিয়ে করার কারণে বেশ আলোচনায় রয়েছেন আনুশকা। তার জনপ্রিয়তাকে কেন্দ্র করেই সিঙ্গাপুরের মাদাম তুসো জাদুঘরে মোমের মূর্তি উন্মোচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জাদুঘর কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে মূর্তিটি জাদুঘরে আগত অতিথিদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ও করবে। মাদাম তুসো কর্তৃপক্ষের বরাতে ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, আনুশকার মূর্তিটি কথা বলবে। এবং সিঙ্গাপুর মিউজিয়ামে এ ধরনের মূর্তি তারটাই প্রথম।

মাদাম তুসো সংস্থাটি অনেক বড় এবং স্বয়ংক্রিয় কার্যক্ষম ফিচার মূর্তিটিতে যুক্ত করছেন। শুধু বড় বড় নেতা ও আইকনদের মূর্তিতেই এ ধরনের ফিচার থাকে। এ ধরনের উদ্যোগ জাদুঘর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে বিশ্বজুড়ে আনুশকার জন্য একটি বড় সম্মান।

আন্তর্জাতিক

গাজায় ইসরাইলি গুলিতে ফিলিস্তিনি কিশোর...

প্রতিনিধী | আপডেট: ০৩:৩৩, জুলাই ১৪ , ২০১৮



মারিয়া নুর:: গাজা উপত্যকায় নিজেদের বসতভিটায় ফেরার অধিকার দাবিতে বিক্ষোভে ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে এক ফিলিস্তিনি কিশোর নিহত হয়েছে।


 
গত ৩০ মার্চ শুরু হওয়া বিক্ষোভে ইসরাইলের প্রাণঘাতী হামলায় এ পর্যন্ত ১৪০ জন নিহত হয়েছেন।

শুক্রবারের বিক্ষোভে কয়েক হাজার লোক অংশ নিয়েছিলেন। কেউ কেউ সীমান্তবেষ্টনীর কাছে গিয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন।

ইসরাইলি সেনাবাহিনী জানিয়েছে, ইসরাইলের ভূখণ্ডে কোনো ফিলিস্তিনি ঢুকতে চাইলেই তাকে গুলি করা হয়েছে।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল কুদরা বলেন, ১৫ বছর বয়সী কিশোর ওসমান রামি হাল্লিসের বুকে গুলি লেগেছে। এ ছাড়া আরও ৭০ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ২০ জনের শরীরে তাজা গুলি লেগেছে।

২০ লাখ লোকের গাজা উপত্যকার অধিকাংশই শরণার্থী হিসেবে বসবাস করছেন। গত একযুগ ধরে চলা ইসরাইল ও মিসরের অবরোধে সেখানকার অর্থনীতি মারাত্মকভাবে পতন ঘটেছে।

শিক্ষা

শিক্ষার্থীদের কথা দিয়ে কথা রাখেননি...

স্টাফ | আপডেট: ২৩:৩৫, জুলাই ১৩ , ২০১৮



কাজী সাবরিনা:: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, কোটা বাতিল নিয়ে শিক্ষার্থীদের কথা দিয়ে কথা রাখেননি প্রধানমন্ত্রী। এ কথা বাংলাদেশের মানুষ এবং এ প্রজন্ম মনে রাখবে। কোটা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এ অবস্থান মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। সত্যিকার অর্থে যদি প্রধানমন্ত্রী কোটা প্রত্যাহার করে নিতে চাইতেন তাহলে হাইকোর্টের বাধাও অবশ্যই দূর করা যেত। যদি নিয়ত ঠিক থাকত তাহলে এটাই করতেন।


 
শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে স্বাধীনতা ফোরাম নামের একটি সংগঠন আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। সংগঠনটির সভাপতি আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহর সভাপতিত্বে ও সহসভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ বাবুলের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য দেন- গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, নির্বাহী কমিটির সদস্য খালেদা ইয়াসমীন, জাতীয় দলের সভাপতি সৈয়দ এহসানুল হুদা, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মাওলানা সোয়াইব আহমেদ প্রমুখ।

মওদুদ আহমদ বলেন, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়কমন্ত্রী হাইকোর্টে একটা রায়ের কথা বলেছেন। এ ধরনের কোনো রায় আছে বলে আমি মনে করি না। তারপরও যদি এ ধরনের কোনো রায় থাকে তা মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ব্যাপারে আছে। তাদের নাতি-নাতনিদের ব্যাপারে আছে বলে আমি মনে করি না। প্রধানমন্ত্রী তার নিজের প্রতিশ্রুতি রক্ষার জন্য হাইকোর্টে গিয়ে ওটা সংশোধন করাতে পারেন। যদি সরকার মনে করেন হাইকোর্টের রায়ই হল একমাত্র বাধা, তাহলে সরকারের পক্ষ থেকে অ্যাটর্নি জেনারেল কষ্ট করে রোববার একটু যান, সোমবারে বিষয়টা যদি লিস্টে এনে একটু সংশোধনী করিয়ে নেন, একটু রিভিউ করিয়ে নেন। কত রকমেরই তো পথ আছে। যদি নিয়ত ঠিক থাকত তাহলে এটাই করতেন।

কোটা আন্দোলনকারীদের গ্রেফতার করে রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতনের কঠোর সমালোচনা করেন মওদুদ আহমদ। তিনি বলেন, কেন এ অত্যাচার-নির্যাতন করছেন। কালকে (বৃহস্পতিবার) সংসদে প্রধানমন্ত্রীর বক্তৃতা শুনে মর্মাহত হয়েছি। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, এদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। এটাকেই বলে ফ্যাসিবাদ। কোটা আন্দোলনকারীদের ওপর নিপীড়ন-নির্যাতনের বিচার বাংলাদেশের মাটিতে অবশ্যই একদিন হবে।

আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটানো হবে মন্তব্য করে মওদুদ আহমদ বলেন, রাজনীতি অত্যন্ত গতিশীল। যেকোনো মুহূর্তে যেকোনো ঘটনা ঘটতে পারে। দেশের মানুষ এখন প্রস্তুত হয়ে গেছে মাঠে নামার জন্য। আরেকটু অপেক্ষা করতে হবে। উপযুক্ত সময় এলে এমন কর্মসূচি দেয়া হবে, যার ফলে এ ফ্যাসিবাদী সরকারের পতন ঘটবে। সরকার রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে আদালতের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করে রেখেছে অভিযোগ করে মওদুদ আহমদ বলেন, কৌশল অবলম্বন করে তার জামিনকে আটকে রাখা হয়েছে। হাইকোর্ট চার মাসের জামিন দিয়েছিলেন। একটা দিনের জন্য আমার নেত্রী দিনের মুক্ত আলো দেখতে পারেননি। কেন? ওই যে ম্যাজিস্ট্রেট বসে আছেন। একেবারে নিুতম পর্যায়ের বিচারক, তিনি দরজা বন্ধ করে দিয়েছেন।

অর্থাৎ দেশের উচ্চতম আদালতের চাইতে ওই ম্যাজিস্ট্রেট অনেক বেশি ক্ষমতাশালী। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা বলতে, মান-সš§ান বলতে, ঐতিহ্য বলতে এখন আর কিছু নেই। সব বিলীন হয়ে গেছে।

স্বাস্থ্য

হাসপাতাল থেকে বৃহস্পতিবার ছাড়া পাবে থাই...

কলামিস্ট | আপডেট: ০৯:৪০, জুলাই ০৩ , ২০১৮



ইয়াসমিন আক্তার:: থাইল্যান্ডের থাম লুয়াং গুহায় ১৭ দিন আটকা থাকার পর উদ্ধার হওয়া ১২ কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচ দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠছে। কাজেই আগামী বৃহস্পতিবার তারা হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাবে।


 
দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী পিয়াসাকোল সাকোলসাটাইয়াডনের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে কিশোরদের একটি ভিডিও দেখানো হয়েছে। তাতে দেখা গেছে, তারা হাসপাতালের বেডে বসে আছে। তারা সুস্থ ও ভালো আছে। উদ্ধারকারীদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে কিশোররা।

নট নামে ১৪ বছর বয়সের এক কিশোর জানায়, আমার স্বাস্থ্য ভালো আছে। আমাকে রক্ষার জন্য ধন্যবাদ।

১১-১৬ বছর বয়সী এ কিশোররা কোচকে সঙ্গে নিয়ে মাত্র এক ঘণ্টা থাকার ইচ্ছা নিয়ে গত ২৩ জুন গুহায় ঢুকেছিলেন। কিন্তু বৃষ্টি শুরু হলে পাহাড়ি ঢলে তারা সেখানে আটকা পড়ে।

নিখোঁজ হওয়ার ১০ দিনের মাথায় গুহার মুখ থেকে চার কিলোমিটার ভেতরে দলটির সন্ধান পান দুই ব্রিটিশ ডুবুরি।

দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ১২ কিশোর ও তাদের কোচ শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ হয়ে উঠছে। তাদের আগামী ১৯ জুলাই হাসপাতাল থেকে ছাড়া হবে।

তিনি বলেন, হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে আসার পর তাদের নিয়ে যে হুড়োহুড়ি শুরু হবে, তার জন্য কিশোর দল ও তাদের পরিবারকে আমরা প্রস্তুত করছি।

বর্ষা মৌসুমে টানা বৃষ্টিপাতের কারণে গুহার পানি বাড়তে থাকায় কিশোর দলটির সন্ধান পাওয়ার পরও তাদের বের করে আনা সম্ভব হচ্ছিল না।

কীভাবে বের করা হবে এ নিয়ে আলাপ-আলোচনার মধ্যেই আবহাওয়া অধিদফতর থেকে আরও ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেয়ার পর ঝুঁকি নিয়েই কিশোরদের বের করে আনার কাজ শুরু হয়।

কিশোরদের উদ্ধার অভিযানে দেশি-বিদেশি প্রায় হাজারখানেক ডুবুরি অংশ নেন।


 
তাদের মধ্যে থাই নৌবাহিনীর সাবেক সদস্য এক ডুবুরি কিশোর দলের কাছে অক্সিজেন সিলিন্ডার পৌঁছে দিয়ে ফেরার পথে অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু বরণ করেন।

গত রোববার থেকে কিশোরদের বের করে আনার চূড়ান্ত অভিযান শুরু হয়। ওই দিন চারজন, পর দিন চারজন এবং তৃতীয় দিন আরও চার কিশোর ও তাদের কোচকে নিরাপদে বের করে আনা হয়।

চিয়াং রাইর একটি হাসপতালে তাদের চিকিৎসা চলছে।

পিয়াসাকল বলেন, ১৩ জনেরই স্বাস্থ্য ভালো আছে। তাদের কয়েকজনের নিউমোনিয়া হয়েছিল। কিন্তু তারা সুস্থ হয়ে উঠছে।

আইটি টেক

দেশে ডিজিটাল সেবায় বৈপ্লবিক পরিবর্তন...

স্টাফ | আপডেট: ০৩:২৭, জুলাই ১৪ , ২০১৮



কাজী সাবরিনা:: বাংলাদেশ দ্রুত গতির ডিজিটাল সড়কে উঠে গেছে। খুব অল্প সময়ে দেশে চালু হয়েছে দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক নানান প্রতিষ্ঠান। তাদের সেবা প্রান্তিক পর্যায়ে পৌঁছে দেয়া, গ্রহণযোগ্যতা এবং সহজলোভ্য করার জন্য নানান কর্মপরিকল্পনা করতে হয় এসব প্রতিষ্ঠানগুলোকে। এসব কর্মপরিকল্পনার অন্যতম একটি অংশ ‘শর্টকোড’ সেবা।


 
ফোন কল সেবার সংক্ষিপ্ত হলো শর্টকোড। লম্বা সিরিয়ালের নম্বরে ফোন না করে সংক্ষিপ্ত একটি নম্বরে কল করা যায় নিমিষেই। ছোট সংখ্যার নম্বর বলে এটি মনে রাখাও সহজ। দেশের সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের জরুরী বিভাগ এই সেবাগুলো দিচ্ছে। তবে এসব নম্বর ব্যক্তিগতভাবে ব্যবহার করার সুযোগ নেই।

প্রাতিষ্ঠানিক, দাফতরিক, ব্যবসায়িক ও মোবাইলফোন বা সংশ্লিষ্ট অপারেটররা তাদের সেবাদানের সুবিধার্থে এই শর্টকোড ব্যবহার করে থাকে। প্রচলিত টেলিফোন নম্বর থেকে উল্লেখযোগ্যভাবে ছোট ৩ থেকে ৫ বা ৬ ডিজিটের ফোন নম্বরগুলোই বর্তমানের আলোচিত শর্টকোড। তবে দেশ অনুযায়ী এটি ভিন্নও হতে পারে।

বর্তমানে ছোট বড় যে কোনো প্রতিষ্ঠান নিজস্ব সেবাদানে (মার্কেটিং এবং প্রমোশনস, অ্যালার্ট অ্যান্ড নোটিফিকেশন, টু ফ্যাক্টর অথনটিকেশন ইত্যাদি) শর্টকোড ব্যবহার করে কল সেন্টার বা কনটাক্ট সেন্টার স্থাপন করছে।

যেখানে এই কোডগুলোতে কল করে বা এসএমএস পাঠিয়ে গ্রাহক তার প্রয়োজনীয় সেবা গ্রহণ করছেন। অনেক সময় তার বিপরীতটাও ঘটছে।

বিশ্বব্যাপী তিন ধরনের শর্টকোডের প্রচলন রয়েছে- গোল্ডেন শর্টকোড, ডেডিকেটেড শর্টকোড ও শেয়ারড শর্টকোড। নিয়ম মাফিক আইএসপি-টিএসপি (ইন্টারনেট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান) এবং পিএসটিএন (ফিক্সড ফোন) অপারেটররাই দেশে একমাত্র শর্টকোড পার্ক করে থাকে।

বাংলাদেশ টেলিকম রেগুলারেটি কমিশন (বিটিআরসি) দুই ধরনের সেবার জন্য শর্টকোড দিয়ে থাকে। একটি হলো ব্যবসায়িক আর দ্বিতীয়টি হলো অব্যবসায়িক। বিটিআরসির নির্দিষ্ট ফি ও নির্ধারিত ফরমে আবেদন করে শর্টকোড বরাদ্দ নেওয়া যায়।

ক্যাটাগরি এ-ব্যবসায়িক শর্টকোডের বরাদ্দ ফি ১ লাখ এবং বার্ষিক নবায়ন ফি ৫০ হাজার টাকা। ব্যাংকিং সেক্টরগুলো সাধারণত এই সেবা নিয়ে থাকে।

ক্যাটাগরি বি হলো অব্যবসায়িক শর্টকোড। এর বরাদ্দ ফি ৫০ হাজার এবং নবায়ন ফি ২৫ হাজার টাকা। ই-হেলথ, ই-এডুকেশন, ই-গভর্নেন্স এ জাতীয় সেবাগুলো এই ক্যটাগরির আওতায় দিয়ে থাক।


 
বিটিআরসি আগে ৩ বা ৪ ডিজিটের শর্টকোড বরাদ্দ দিলেও বর্তমানে ৫ ডিজিটের নম্বর বরাদ্দ দিয়ে থাকে।

৩, ৪ বা ৫ ডিজিটের নিজস্ব শর্টকোড রয়েছে মোবাইল অপারেটরদের । মূলত নিজেদের সেবা দেওয়ার জন্যই তারা নিজস্ব শটকোড ব্যবহার করে থাক। একজন মোবইল অপারেটরের শর্টকোড অন্য মোবাইল অপারেটর ব্যবহার করতে পারে না।

মোবাইল অপারেটররা নানা ধরনের ভ্যালু অ্যাডেড (ওয়েলকাম টিউন, কলার টিউন ইত্যাদি) সেবা প্রদান করতে নিজস্ব শর্টকোড ব্যবহার করে থাকে।

এই শটকোডের মাধ্যমে তারা নানারকম রেজিস্ট্রেশন, ভোটিং, পোলিং, কুইজ এবং বিভিন্ন ধরনের প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। এগুলোর মাধ্যমে পরীক্ষার আসন বিন্যাস, ফলাফল প্রকাশসহ অনেক কিছুই জানানো যায়।

তবে বিটিআরসি থেকে শর্টকোড বরাদ্দ নিলেই কিন্তু তা ব্যবহার করা বা সেবা দেওয়া যায় না।

দেশের যেকোনও জায়গায় সেবা দিতে সক্ষম আইপিটিএসপি বা পিএসটিএন অপারেটরের কাছ থেকে সেবা নিতে হয় যাদের উন্নত ও পরিষ্কার ভয়েস কল থাকতে হবে এবং কলড্রপের হার হবে শূন্য।

এ ধরনের কাজে দেশের অনেক প্রতিষ্ঠানই সেবা দিয়ে যাচ্ছে। তবে এর মধ্যে অন্যতম হলো আম্বার আইটি। প্রতিষ্ঠানটি আইটি, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, করপোরেট ও সরকারের বিভিন্ন দফতরে বা প্রকল্পে শর্টকোডের প্রযুক্তি সেবা দিয়ে থাকে।

সেবা গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো ব্র্যাক ব্যাংক, বিকাশ, সিটি ব্যাংক, ইউসিবিএল ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক ও লংকাবাংলা। এছাড়া সরকারের ইউনিয়ন পরিষদ হেল্পলাইন, তথ্যআপার হেল্পলাইন বা শর্টকোডে আম্বার আইটি সেবা দিয়ে থাকে। বাংলালায়ন এবং ওলোতেও শর্টকোড সেবা দিচ্ছে আম্বার আইটি।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী আমিনুল হাকিম বলেন, আম্বার আইটির বিশেষত্ব হলো এর রয়েছে ডেডিকেটেড সাপোর্ট টিম, ২৪ ঘণ্টা কাস্টমার কেয়ার, দক্ষ টিম।

শর্টকোড ব্যবহারকারী গ্রাহক বা প্রতিষ্ঠান তাদের সব তথ্য পোর্টালে দেখতে পাবেন বলে তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, সেবা প্রদানের জন্য এরই মধ্যে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে শর্টকোড বরাদ্দ দিয়েছে কমিশন। ন্যাশনাল নাম্বারিং প্ল্যান ২০০৫ অনুযায়ী, বরাদ্দ দেয়া এ নম্বরগুলো আন্তঃঅপারেটর শর্টকোড।

এর মধ্যে টোল ফ্রি শর্টকোডও রয়েছে। দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে মোবাইল ফোন কিংবা ফিক্সড ফোন থেকে এসব শর্টকোডের মাধ্যমে বিনামূল্যে সেবা পাবেন যে কেউ।

সাহিত্য

কাজী আরমানের কষ্টের সাথে আপোস

কলামিস্ট | আপডেট: ২৩:৩৮, জুলাই ১৩ , ২০১৮

আমি আছি বলে হয়তো তুমি আছ...............
আমি নেই বলে তুমি হারিয়ে গিয়েছো................
অজানা কথা গুলো যদি কখনো শুনতে পেয়েছো.....
হয়তো সেই দিন মনে করে নিব
তুমি অনুভবে আমায় অনেক বেশি ভালোবেসেছো.........

কোন এক কারনে হয়তো তুমি
স্বার্থপরের মতো করে আমায় ভালোবেসেছো......
অবিভাজ্য কিছুই ছিলনা বলে
আমায় তুমি মুগ্দ করতে সক্ষম হয়েছো......

মোটেই ভেবোনা নির্বোধ ছিলাম আমি 
তাই তোমার নাটকিয় প্রেমে আমায় জড়িয়েছো..........
মিথ্যা বলতে শিখিনি রাগটাও দেখাতে পারিনি.....
তাই পিছু হেটে চলে এসেছিলাম
কিছুই বলে আসিনি অভিমানটাও দেখতে পাওনি 
শুধু কষ্টের সঙ্গে যুদ্ধ করে বাস্তবতাকে মেনে নিয়ে
আপোস করেছি ভাগ্যের সাথে।


কষ্টের সাথে আপোস 
কাজী আরমান 

ফিচার

সুন্দরীকে দেখানো বারণ!

স্টাফ | আপডেট: ২৩:০৯, জুলাই ১৩ , ২০১৮



সোহানা কবির সোহা: খেলা চলার ফাঁকে গ্যালারিতে সুন্দরী বা আবেদনময়ী কোনো নারী সমর্থকের দিকে টিভি ক্যামেরা জুম করে ধরার প্রবণতা ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া ফাইনালে না-ও দেখা যেতে পারে। ফিফা বিশ্বকাপের ব্রডকাস্টারদের ‘লিঙ্গ বৈষম্যমূলক’ এই চর্চা বন্ধ করতে বলেছে।


 
ফাইনালের আগে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ফিফা এ তথ্য জানায়। ফিফার কর্মকর্তা ফেদেরিকো আদ্দিয়েচি জানান, বিশ্বকাপে গ্যালারিতে থাকা নারী সমর্থকদের এভাবে উপস্থাপন করা দূর করতে হস্তক্ষেপ প্রয়োজন ছিল।

ম্যাচ সম্প্রচারের সময় শুধু নারী সমর্থকদের ‘কাটঅ্যাওয়ের’ ব্যবহার বন্ধের জন্য ফিফা আনুষ্ঠানিক নীতিমালা করবে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে ফেদেরিকো জানান, ফিফার বর্তমান অবস্থান একটি স্বাভাবিক বিবর্তন।

এদিক দিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের ব্রডকাস্টাররা চার বছর আগে ব্রাজিল বিশ্বকাপের চেয়ে কিছুটা উন্নতি করেছে। রাশিয়া বিশ্বকাপের সময় যখনই এরকম কোনো সুস্পষ্ট ঘটনা সামনে এসেছে, ফিফা হস্তক্ষেপ করেছে। ফিফা আশা করছে, ভবিষ্যতের টুর্নামেন্টগুলোয় বিশ্বজুড়ে কোটি কোটি টেলিভিশন দর্শক স্টেডিয়ামের নারী সমর্থকদের আরও সম্মানজনক উপস্থাপন দেখতে পাবে। 

বিজিএমইএ'র কাছে মুচলেকা চেয়েছে আপিল বিভাগ
জনসভায় আপত্তি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
পাকিস্তানের টালবাহানা বাংলাদেশ ফেরত পায়নি ৩৫ হাজার কোটি টাকা
সাত বছরে বিচারিক আদালতে বেড়েছে সাজার হার তিনগুণ
দেশে নিরাপদ পানি নিশ্চিত করার আহ্বান জানালেন: প্রধানমন্ত্রী
পাসপোর্ট প্রবাসীদের প্রাণ আর সেই পাসপোর্ট নিয়ে ভোগান্তি
রকমারি

স্কুলের টিফিনে ক্লাব স্যান্ডউইচ

স্টাফ | আপডেট: ০৫:০৯, জুলাই ১২ , ২০১৮


লাইফস্টাইল ডেস্ক::সকালের শিশুদের স্কুলে যাওয়ার তাড়া থাকে। অনেক সময় দেখা যায় ঠিকমত নাশতা করতে পারে না। শিশুদের স্কুলের টিফিনে, ঝটপট কিছু করে দিতে চাইলে সব থেকে সহজ উপায় হচ্ছে ক্লাব স্যান্ডউইচ। খুব কম সময় আর কম উপকরণেই তৈরি করতে পারবেন এই স্যান্ডউইচ।


 
আসুন জেনে নেই কীভাবে তৈরি করবেন ক্লাব স্যান্ডউইচ।

উপকরণ

চিকেন সেদ্ধ করে রাখা ২০০ গ্রাম, পাউরুটি স্লাইস ২-৪টি, মেয়োনিজ় ২ চামচ, গোলমরিচ গুঁড়ো ১/২ চামচ, রেড চিলি সস ২ চামচ ডিম ২টা, চিজ় ২ চামচ, বাটার ৪ চামচ, টমেটো গোল করে কাটা ৩-৪ টুকরা, লবণ স্বাদ মতো, তেল ২ চামচ।

প্রণালি

সেদ্ধ চিকেন নিয়ে ছুরি দিয়ে ঝিরিঝিরি করে কেটে নিন। এবার হাত দিয়ে চিকেন ছাড়িয়ে নিয়ে বাটিতে রাখুন। তাতে দিন মেয়োনিজ়, লবণ, গোলমরিচ গুঁড়ো, রেড চিলি সস মিশিয়ে নিন। ভালোভাবে সমস্ত উপকরণগুলো মিশিয়ে নিন।

এবার পাউরুটির স্লাইসে বাটার মাখিয়ে টোস্ট করে নিন। এরপর প্যানে সামান্য তেল গরম করুন। তাতে ডিম ফাটিয়ে দিয়ে পোচ বানিয়ে নিন। এবার টোস্ট করে রাখা পাউরুটি স্লাইসে বাটার লাগিয়ে নিন। তার ওপর ছড়িয়ে দিন চিকেনের মিশ্রণ।

চিকেনের মিশ্রণের ওপর আরেকটি পাউরুটির স্লাইস বসিয়ে ওপর থেকে চিজ় ছ়ডিয়ে দিন। চিজ়ের ওপর বসিয়ে দিন ৩-৪ টুকরা টমেটো স্লাইস। ওপর থেকে ছড়িয়ে দিন গোলমরিচ গুঁড়া, ডিমের পোচ। পোচের ওপর ছড়িয়ে দিন লবণ, গোলমরিচ গুঁড়া।

আরেকটি স্লাইস পাউরুটিতে বাটার মাখিয়ে ওপরে বসিয়ে দিন। ব্যাস, তৈরি চিকেন ক্লাব স্যান্ডউইচ।