সর্বশেষ

রাজশাহী জেলার বাঘায় ঘুর্ণিঝড়ের তান্ডবে ৩০কোটি টাকার ক্ষতি ও একজনের মৃত্যু

স্টাফ | আপডেট: ১৪:০৪, অক্টোবর ১০ , ২০১৭

ইঞ্জিনিয়ার আখতার রহমান রাজশাহী ব্যুরো  ::: রাজশাহীর বাঘায় ঘুর্ণিঝড়ের তান্ডবে ঘর-বাড়ি ও গাছপালা বিধ্বস্তের সময় সাদের আলী নামের এক ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেছে। ঝড়ের তান্ডবনীলার আতঙ্কে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করে উপজেলার আড়ানি পৌর সভার গোচর এলাকার আবু তাহেরের ছেলে সাদের আলী। কাঁচা ও আধাপাকা ঘর-বাড়ি,স্কুল,মন্দির গাছ-পালা বিধ্বস্ত হয়ে প্রায় ৩০ কোটি টাকার ক্ষতি সাধিত হছে বলে জানা গেছে।
মঙ্গলবার (১০-১০-১৭) দুপুরে উপজেলার বাউসা, আড়ানি ইউনিয়নসহ আড়ানি পৌর সভার কয়েকটি গ্রামের উপর দিয়ে বহে যাওয়া আশ্বিনের ঘুর্নিঝড়ে ১টিস্কুল, ১টি মন্দিরসহ প্রায় ২শতাধিক কাঁচা ও আধাপাকা ঘর-বাড়ি,১ হাজারের অধিক গাছ-পালা বিধ্বস্ত হয়।

 সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ঘুর্নিঝড়ের তান্ডবে বাউসা হাজীপাড়া গ্রামের রাবিয়া বেওয়ার ৭ বিঘা জমিতে লাগানো আম  গাছের মধ্যে মাত্র ৩টি আম গাছ দাড়িয়ে আছে। তার মতো অনেক বাগান মালিক ঘুর্নিঝড়ের তান্ডবে গাছপালা হারিয়েছে। দিঘা হিন্দুপাড়ার আনোয়ারের মাথা গোজা যে ঘরটি ছিল,সেটিও ঝড়ে বিধ্বস্ত হয়েছে। উড়ে গেছে দিঘা বালিকা বিদ্যালয়ের টিনের চালা। ইহাছাড়া দীঘা গ্রামের মজিবুরের ৫০ (পঞ্চাশ) টি আমগাছ বিধ্বস্ত হয়েছে। একইভাবে দুই শতাধিক ঘর-বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

 বাউসা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান শফিক বলেন, তার ইউনিয়নে সব মিলিয়ে প্রায় ১৫ কোটি টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে। আড়ানি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম জানান, তার ইউনিয়নেও  ঝড়ের তান্ডবে প্রায় ১০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। ঝড়ের আতঙ্কে সাদের আলীর মৃত্যুর বিষয়টি  নিশ্চিত করে আড়ানি পৌরসভার কাউন্সিলর জিল্লুর রহমান জানান,তার ওয়ার্ডে প্রায় ৫ কোটি টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে।
খবর পেয়ে বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ শাহিন রেজা। তবে তাৎক্ষনিক ক্ষতির পরিমান জানাতে পারেননি নির্বাহী অফিসার।

পাঠকের মন্তব্য
লগইন করুন
লগইন মনে রাখুন