Main Menu

যাত্রী ভেবে এসআইকে গাড়িতে তুলল ছিনতাইকারী, অতঃপর...

যাত্রী ভেবে এসআইকে গাড়িতে তুলল ছিনতাইকারী, অতঃপর…

 

সোহানা কবির:: রাজধানীর মহাখালী আমতলী থেকে যাত্রী মনে করে পুলিশের এসআই কেএম নূর-ই-আলমকে গাড়িতে তুলে মারধরের পর সর্বস্ব লুটে নিয়েছে ছিনতাইকারী চক্র।

এ ঘটনায় চক্রটির চার সদস্যকে আটক করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

আটকরা হলেন- বজলু আলমগীর, মাসুম বিল্লাহ, মুক্তার হোসেন ও মোহাম্মদ আলী। এ সময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার, রড, লাঠি ও চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিবির যুগ্ম-কমিশনার মাহবুব আলম এ সব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, গত ১৭ জুলাই রাতে ডিএমপির এসআই কেএম নূর-ই-আলম ছুটিতে নেত্রকোনায় গ্রামের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। তার সঙ্গে একটি এলজি টেলিভিশন, একটি মোবাইল, দুই সেট পুলিশ ইউনিফর্ম ও অন্যান্য পোশাকসহ নগদ অনুমান তিন হাজার টাকা ছিল।

ওইদিন রাত দেড়টার দিকে মহাখালী আমতলী ফ্লাইওভারের নিচে একটি সিলভার কালারের প্রাইভেটকার ঢাকা মেট্রো-গ-১৪-৪৫৮৫ তার সামনে এসে দাঁড়ায়। গাড়িটি নেত্রকোনা পর্যন্ত যাবে বলে চালক এসআই কেএম নূর-ই-আলমকে জানালে জনপ্রতি ৩০০ টাকা ভাড়া ঠিক হয়।

নূর-ই-আলম গাড়িতে ওঠা মাত্রই প্রাইভেটকারের পেছনের দুইপাশের দরজা দিয়ে দু’জন বসে এবং মাঝখানে তাকে বসিয়ে হাত, পা এবং চোখ বেঁধে ফেলে। এরপর তার শরীর তল্লাশি করে মানিব্যাগ নিয়ে নেয়।

মানিব্যাগে থাকা এটিএম কার্ড দিয়ে তারা বুথের ভেতর টাকা তুলতে গেলে অ্যাকাউন্টে কোনো টাকা না থাকায় এসআই নূর-ই-আলমকে এলোপাতাড়ি মারতে থাকে। একপর্যায়ে মালামাল কেড়ে নিয়ে কিছুদূর গিয়ে তাকে রাস্তায় ফেলে দেয়।

পরে এসআই নূর-ই-আলম অভিযোগ দিলে গোয়েন্দা পুলিশের পশ্চিম বিভাগের একটি টিম শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে ওই ছিনতাইচক্রের চার সদস্যকে আটক করে।






আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*