Main Menu

পুতুলের ইনজেকশন নেয়া দেখে অস্ত্রোপচারে রাজি হলো শিশুটি

 

মারিয়া নুর:: পুতুলের ইনজেকশন নেয়া দেখে অস্ত্রোপচার করাতে সম্মত হয়েছে ১১ মাস বয়সী একটি মেয়ে।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দিল্লির লোক নায়েক হাসপাতালে।

ভারতের একাধিক সংবাদমাধ্যম জানায়, গলায় স্টেথোস্কোপ, হাতে ইনজেকশন- ডাক্তারের এমন এই বেশভূষা দেখেই রীতিমতো কান্না শুরু করে দেয় শিশুটি। আর এ কারণে ফুটফুটে ওই শিশুটির অস্ত্রোপচার করাতে রীতিমতো বেগ পেতে হচ্ছিল ডাক্তার-নার্সদের।

কিন্তু তার পায়ের হাড়ে চিড় ধরেছে। জখম রয়েছে হাতেও। এ অবস্থায় অস্ত্রোপচার ছাড়া উপায়ও নেই।

পরে ডাক্তাররা বুদ্ধি বের করে একটি পুতুল দিলেন শিশুটিকে। শিশুটির কান্না থেমে গেল। এর পর ডাক্তাররা পুতুলকে ইনজেকশন দিলেন এবং তার শরীরে ব্যান্ডেজ করে দিলেন।

পায়ে প্লাস্টার করে ডাক্তাররা শুইয়ে দিলেন শিশুটির পাশে। পুতুল দেখে কান্না একেবারে গায়েব হয়ে গেল শিশুটির। ঠিক পুতুলের মতো করেই এর পর শিশুটির চিকিৎসা করলেন ডাক্তাররা। এবার আর আপত্তি জানাল না শিশুটি।

শিশুটির চিকিৎসা যিনি করেছিলেন, সেই অর্থোপেডিক সার্জন ড. অজয় গুপ্ত এসব কথা জানান।

ঘটনা প্রসঙ্গে অনুত্তমা বন্দ্যোপাধ্যায় নামে এক মনোবিদ বলেন, এ ধরনের চিকিৎসাকে ডাক্তারি ভাষায় বলে ‘প্লে থেরাপি।’ বাচ্চারা আসলে পুতুলের সঙ্গে সবচেয়ে বেশি একাত্মবোধ করে। আর এ কারণেই বাচ্চাটি পুতুলের চিকিৎসা করানো দেখে তার নিজেরও চিকিৎসা করাতে রাজি হয়েছে।






আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*