Main Menu

অর্থের কাছে মোরা সবাই ভিখারী

অর্থের কাছে মোরা সবাই ভিখারী
কাজী আরমান সংখ্যা=২৮৯৮

রাত হলেই রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা
অসহায় নারীটাও অর্থ কষ্টে পতিতা বনে যায়
ভিক্ষুক কিংবা পাগল সেজে থাকা
অসহায় মানুষগুলোকে দেখি
আঁধার রাতে চোর ডাকাতে রুপান্তরিত হতে হয়।

দেশে সবতো ভালো মানুষ
অমানুষ বলে কেউ নাই,
দেশের অর্থ লুটে নিয়ে
কেউ কেউ লন্ডন আমেরিকায় বসে কোম্পানী সাজায়।

অভাব আর ছলনায়
ফেঁসে যাওয়া নারীটারই বা কি দোষ
অভাবের তারনায়ে সেতো
প্রতিরাতেই হাতে হাতে বদলায়।

ভিক্ষুক থেকে ডাকাত হওয়া
মানুষগুলোরই বা কি দোষ,
সেতো নিজেকে অপরাধী সাজিয়ে
নিরপরাধ পরিবারের বড় সহায়।

অস্ত্র আর ক্ষমতা দেখিয়ে
অর্থের পাহাড় বানিয়েছে যারা,
ঘুষকোর নিত্যদিনের রাজাকারেরা
সর্বদা এগিয়ে থাকে লুটতোরাজদের সহযোগীতায়।

একাত্তর একবারই হয়েছিল দেশে
সে কথা সবারই মনে আছে কেহ ভূলি নাই
কিন্তু নিত্যদিনের একাত্তরতো প্রতিদিনই হয়
মনের চোখ আর দেশেত্ববোধ থাকলে
প্রতিদিনকার একাত্তর খুব সহজে দেখা যায়।

প্রশ্ন লুঙ্গি পরিহিত বাঙ্গালীরা হঠাৎ
ত্রি-কুয়াটার আর টু-কয়াটার পরে,
বিদেশী হনুমানের সাজে সাজতে গিয়ে
ক্যাসিনো আর মাদক দিয়ে বাংলা সাজায়।






আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*